বেগম খালেদা জিয়াকে জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে কাভার্ডভ্যান পোড়ানোর অভিযোগে বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট।আজ বুধবার বিচারপতি এ কে এম আসাদুজ্জামান ও বিচারপতি এস এম মজিবুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ তার জামিন মঞ্জুর করেন।আদালতে আবেদনের পক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী। সাথে ছিলেন ব্যারিস্টার নওশাদ জমির, ব্যারিস্টার কায়সার কামাল প্রমুখ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ড. মো: বশির উল্লাহ।১৩ সেপ্টেম্ববর কুমিল্লা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক কে এম সামছুল আলম তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে আদেশ দেন।ওই আদেশের বিরুদ্ধে জামিন চেয়ে হাইকোর্টে আপিল করেন খালেদা জিয়া।২০১৫ সালের ২৫ জানুয়ারি ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চৌদ্দগ্রাম উপজেলা সদরের পৌর এলাকার হায়দারপুল এলাকায় একটি কাভার্ডভ্যানে আগুন দেয়ার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পরদিন অর্থাৎ ২৬ জানুয়ারি চৌদ্দগ্রাম থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) নুরুজ্জামান হাওলাদার বাদী হয়ে বিএনপি চেয়ারপারসনসহ ২০ দলের স্থানীয় ৩২ জনের বিরুদ্ধে এ মামলাটি করেন। মামলায় খালেদা জিয়াকে হুকুমের আসামি করা হয়। উৎস – নয়া দিগন্তজিয়া উদ্দিন বাবলুকে প্রতিহত করতে রংপুরে জাপা নেতাদের অবস্থানজাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের নির্দেশ অমান্য করে চুরি করা মনোনয়নপত্র দাখিল করার জন্য রংপুরে আসা দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য জিয়া উদ্দিন বাবলুকে প্রতিহত করতে ডিসি অফিস, তারাগঞ্জ-বদরগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ-সৈয়দপুর ইউএনও অফিসে অবস্থান নিয়েছে জাতীয় পার্টি, অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের নেতা-কর্মীরা। বুধবার দুপুর থেকে বিক্ষুদ্ধ জাপার নেতা-কর্মীরা এই অবস্থান নেন।জাতীয় পার্টি সূত্র জানায়, কঠোর গোপনীয়তার মধ্য দিয়ে জিয়া উদ্দিন বাবলু ও তার স্ত্রী টুম্পা মঙ্গলবার রাতে রংপুরে আসেন। দল থেকে মনোনয়ন না পাওয়ায় মনোনয়নপত্র চুরি করে রংপুর-২ (বদরগঞ্জ-তারাগঞ্জ) আসনে নতুবা নীলফামারী-৪ (সৈয়দপুর-কিশোরগঞ্জ) আসনে তার মনোনয়নপত্র দাখিল করার কথা। এমন খবর পেয়ে সকাল থেকেই নেতাকর্মীরা তাকে প্রতিহত করতে সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তা ও সহকারি রিটার্নিং কর্মকর্তাদের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়েছেন।এ ব্যপারে জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও রংপুর মহানগরের সাধারণ সম্পাদক এসএম ইয়াসির বলেন, ‘এরশাদ স্যারের নির্দেশ অমান্য করে মনোনয়নপত্র চুরি করে জিয়া উদ্দিন বাবলু রংপুর-২ এবং নীলফামারী-৪ আসনে গোপনে তা দাখিলের জন্য বুধবার সকাল থেকে চেষ্টা করছেন। তাকে প্রতিহত করার জন্য জাতীয় পার্টির সকল স্তরের নেতা-কর্মীরা রংপুর ডিসি অফিস, আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তার অফিস, সৈয়দপুর-কিশোরগঞ্জ ও তারাগঞ্জ-বদরগঞ্জ এবং ইউএনও অফিসে অবস্থান নিয়ে বসে আছি। জিয়া উদ্দিন বাবলু ও তার স্ত্রী টুম্পাসহ তার কোন প্রতিনিধি বা দলের অন্য কেউ যদি মনোনয়ন দাখিল করতে আসে তা প্রতিহত করা হবে’।অন্যদিকে কেন্দ্রীয় জাতীয় পার্টির নির্বাহী কমিটির অন্যতম সদস্য ও রংপুর জেলার ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হাজী আব্দুর রাজ্জাক জানান, ‘জিয়া উদ্দিন বাবুল দলীয় প্রধানের নির্দেশ অমান্য করে মনোনয়ন চুরি করে যে অপচেষ্টা চালাচ্ছেন তা আমরা রুখে দেব। এজন্য রিটার্নিং কর্মকর্তা ও সহকারি রিটার্নিং কর্মকতাদের অফিস, আশপাশের এলাকা ও মূল ফটকে দলের নেতা-কর্মীরা অবস্থান নিয়েছে’।জেলা যুব সংহতির সাধারণ সম্পাদক হাসানুজ্জামান খান নাজিম বলেন, ‘আমরা রংপুর ডিসি অফিসের বটতলাতে অবস্থান নিয়েছি। এখানে ছাত্রসমাজ, যুবসংহতি, স্বেচ্ছাসেবক পার্টি, মহিলা পার্টি, শ্রমিক পার্টিসহ দলীয় নেতা-কর্মীরা আছেন। বাবলু কিংবা তার কোন প্রতিনিধি এখানে আসার সুযোগ পাবে না’।মহানগর জাতীয় ছাত্রসমাজের সভাপতি ইয়াছির আরাফাত বলেন, ‘আমরা গতরাত থেকে জানতে পেরেছি বাবলু দলের চেয়ারম্যানের নির্দেশ অমান্য করে গোপনে মনোনয়ন দাখিলের জন্য রংপুরে এসেছেন। আমরা তাকে কোনভাবেই মনোনয়ন দাখিল করতে দিব না

Advertisements